Daily Sunshine

বাংলাদেশকে হালকাভাবে নেওয়ার সুযোগ নেই

Share

স্পোর্টস ডেস্ক: দক্ষিণ আফ্রিকাকে ঘরের মাঠে তিন ম্যাচ টেস্ট সিরিজে হোয়াইটওয়াশ করেছে ভারত। নভেম্বরে তারা বাংলাদেশের বিপক্ষে তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি ও দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজ খেলবে। দক্ষিণ আফ্রিকাকে সহজেই হারাতে পারলেও বাংলাদেশের বিপক্ষের সিরিজ কঠিন হবে বলে মত দিয়েছেন ভারতের প্রাক্তন ক্রিকেটার ভিভিএস লক্ষ্মণ। তিনি এও জানিয়েছেন বাংলাদেশকে হালকাভাবে নেওয়ার সুযোগ নেই।
লক্ষ্মণ বলেছেন, ‘আমার মনে হচ্ছে বাংলাদেশ-ভারত সিরিজটি বেশ প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হতে যাচ্ছে। দক্ষিণ আফ্রিকার বর্তমান দলটির চেয়ে বাংলাদেশ দল বেশি অভিজ্ঞ। তার উপর বাংলাদেশের অধিকাংশ খেলোয়াড়রা ভালো ফর্মে আছে। গেল কয়েক বছরে বাংলাদেশ দল বেশ উন্নতি করেছে। ভারতের বিপক্ষে সব সময় তারা ফাইট করে। সুতরাং পেছনের বিষয়গুলো বিবেচনা করে বাংলাদেশকে হালকাভাবে নেওয়ার সুযোগ নেই।’
অবশ্য এই সফরকে সামনে রেখে বাংলাদেশের খেলোয়াড়রা ১১ দফা দাবি তুলে ধর্মঘট ডেকেছে। বোর্ডের পক্ষ থেকে তাদের দাবি-দাওয়া মেনে না নেওয়া পর্যন্ত তারা ক্রিকেট সংশ্লিষ্ট কোনো কার্যক্রমে অংশ নিবে না। অবশ্য তাদের দাবি-দাওয়া মেনে নেওয়ার পরিবর্তে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন ক্রিকেটারদের এক হাত নিয়েছেন। সে কারণে বোর্ড ও খেলোয়াড়দের মধ্যে একটি দ্বান্দিক সম্পর্ক তৈরি হয়েছে। শেষ পর্যন্ত এটা কোথায় গিয়ে ঠেকে দেখার বিষয়।
অবশ্য বাংলাদেশের ভারত সফর নিয়ে বিসিবিআইয়ের নতুন সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি বেশ আশাবাদী। তিনি বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন ইডেন গার্ডেনে। প্রধানমন্ত্রী তার আমন্ত্রণ গ্রহণ করেছেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

অক্টোবর ২৩
০৩:৪৭ ২০১৯

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

শিল্পের নান্দনিকতায় মুগ্ধ দর্শনার্থী

শিল্পের নান্দনিকতায়  মুগ্ধ দর্শনার্থী

রোজিনা সুলতানা রোজি : এ যেন এক অন্য সবুজের সমারোহ এবং প্রকৃতিপ্রেমীদের মিলন মেলা। গাঢ় সবুজের ফাঁকে ফাঁকে শোভা পাচ্ছে লাল, সাদা, গোলাপী, হলুদসহ হরেক রকম ফুল। টবে বসানো আস্ত আস্ত সবুজ গাছের খর্বাকৃতি। বাংলাবট, লাইকড়, তেঁতুল, কামীনি প্রভৃতি সব গাছের সমারোহ। এ যেন শিল্পীর ছোয়ায় একেকটি নান্দনিক বৃক্ষের সমাহার।

বিস্তারিত




এক নজরে

চাকরি

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সানশাইন ডেস্ক: সদ্য কার্যকর হওয়া সরকারি চাকরি আইনের সংবিধানের সঙ্গে সাংঘর্ষিক সাতটি ধারা বাতিল বা প্রত্যাহার করতে স্পিকার ও ছয় সচিবকে আইনি নোটিস পাঠানো হয়েছে। হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের (এইচআরপিবি) পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মনজিল মোরসেদ রোববার রেজিস্ট্রি ডাকযোগে নোটিসটি পাঠিয়েছেন। স্পিকার, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, রাষ্ট্রপতি সচিবালয়ের সচিব, প্রধানমন্ত্রী

বিস্তারিত