Daily Sunshine

তড়িতাহত স্ত্রীকে বাঁচাতে গিয়ে স্বামীরও মৃত্যু

Share

সানশাইন ডেস্ক: ঘরের পাশের বৈদ্যুতিক তারে জড়িয়ে পড়ে চিৎকার দিয়েছিলেন স্ত্রী, তাকে বাঁচাতে গিয়ে স্বামীও তড়িতাহত হন, মৃত্যু ঘটেছে দুজনেরই। শনিবার যাত্রাবাড়ীর মোমেনবাগে ঘটেছে এই ঘটনা। নিহতরা হলেন জাহাঙ্গীর হোসেন ও তার স্ত্রী আকলিমা আকতার।
সকালে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট এই দম্পতিকে উদ্ধার করে স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজে নিলেও তাদের বাঁচানো যায়নি বলে জানিয়েছে পুলিশ। মোমেনবাগ একটি আধা-পাকা ঘরে স্ত্রীকে নিয়ে ভাড়া থাকতেন রিকশাচালক জাহাঙ্গীর। ডিএমপির ডেমরা জোনের জ্যেষ্ঠ সহকারী পুলিশ সুপার রবিউল ইসলাম রবি বলেন, “ভোরে আকলিমা গোসল করতে বের হন। কিন্তু সরু পথে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে চিৎকার দেন। এসময় তার স্বামী তাকে বাঁচাতে গেলে সেও বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন। টিনশেড ওই ঘরের মাঝ দিয়ে সরু রাস্তা, তার দু’পাশেই টিনের ঘর। তা পেরিয়ে সবার গোসল স্থান। সরু ওই পথের উপর দিয়ে বিভিন্ন ঘরে গেছে বিদ্যুতের তার। ওই পথে যাতায়াতে আগেও অনেকে বৈদ্যুতিক ‘শক’ এর শিকার হয়েছে বলে স্থানীয়রা পুলিশকে জানিয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য জাহাঙ্গীর ও আকলিমার স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ মর্গে রয়েছে।

অক্টোবর ২০
০৪:০৭ ২০১৯

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

তবুও স্বপ্ন দেখেন আকবর

তবুও স্বপ্ন দেখেন আকবর

মাহবুব মোরসেদ : আকবর আলী। বয়স ৪৮ বছর। চার ভাই ও এক বোন। পিতা আব্দুল্লাহ। বাড়ী নওগাঁ জেলার সাপাহার উপজেলার আই-হাই গ্রামে। বাবা-মা মারা গেছে অনেক আগে। সীমান্তবর্তী এই উপজেলার সীমান্ত ঘেঁষা গ্রাম এটি। কাজের সন্ধানে অনেক বছর আগে অন্য দেশে পাড়ি জমায় অন্য তিন ভাই, মোনতাজ, লতিফ ও বাবু।

বিস্তারিত




এক নজরে

চাকরি

অনশনে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে রাজশাহী পাটকলের আট শ্রমিক

অনশনে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে রাজশাহী পাটকলের আট শ্রমিক

স্টাফ রিপোর্টার : অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিক-কর্মচারীদের পিএফ গ্রাচ্যুইটির টাকাসহ ১১ দফা দাবি বাস্তবায়নের দাবিতে আমরণ অনশনের মধ্যে রাজশাহী পাটকলের আটজন শ্রমিক অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। বৃহস্পতিবার সকালে তাদের রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এরা হলেন, আব্দুল গফুর, জয়নাল আবেদিন, আলতাফুন বেগম, মহসীন কবীর, আসলাম আলী, মোশাররফ হোসেন, মোজাম্মেল হক ও

বিস্তারিত