Daily Sunshine

বদলে গেছে বাংলা বর্ষপঞ্জি

Share

বাংলা বর্ষপঞ্জির আবার বদলেছে। গত ১৭ই অক্টোবর থেকে এই পঞ্জিকার হিসেব শুরু হয়েছে। অর্থাৎ ১৪২৫-১৪২৬ সনের নতুন সুপারিশ করা বাংলা সনের সমন্বয় করা হয়। এ সংক্রান্ত খবর ইতোমধ্যে পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে। নতুন সুপারিশ করা বর্ষপঞ্জি অনুযায়ী বৈশাখ, জ্যৈষ্ঠ, আষাঢ়, শ্রাবণ, ভাদ্র ও আশ্বিন এই ছয় মাস হবে ৩১দিন এবং কার্তিক, অগ্রহায়ন, পৌষ, মাঘ ও চৈত্র এই পাঁচ মাস হবে ৩০ দিন। আর ফাল্গুন মাস গণনা করা হবে ২৯ দিন। তবে প্রতি চার বছর পর যে বছর অধিবর্ষ (লিপইয়ার) হবে সে বছর ফাল্গুন মাস গণনা হবে ৩০ দিন। বাংলা একাডেমি বাংলা বর্ষপঞ্জি নিয়ে গবেষণা করছে দীর্ঘদিন থেকে। ১৯৫০ এর দশকে এই বিজ্ঞান ভিত্তিক সংস্কারের উদ্যোগ নেয়া হয়। ভারত সরকার স্বনামখ্যাত জ্যোতিঃ বিজ্ঞানী মেঘনাদ সাহাকে প্রদান করে পঞ্জিকা সংস্কার কমিটি করে। আর এর ধারাবাহিকতায় ২০১৫ সালে বাংলা একাডেমির মহাপরিচালককে আহবায়ক করে পঞ্জিকা সংস্কার কমিটি করা হয়। পত্রিকার খবরে বলা হয়েছে এই কমিটি বাংলা ও গ্রেগরিয়ান দিনপঞ্জির সমন্বয় করে। আর সে মতো ২০১৯ সালের গ্রেগগারিয়ান দিনপঞ্জির সাথে সমন্বয় করে এই নতুন বর্ষপঞ্জি ঘোষণা দেয়া হয়। সে মতো দেশে বাংলা সন গণনাও শুরু হযেছে। এই হিসেবে ২০২০ খ্রিষ্টাব্দ হবে অধিবর্ষ তাই বাংলা বর্ষপঞ্জিতে সে বছর ফাল্গুন মাস হবে ৩০ দিন।
বিজ্ঞান ভিত্তিক এই সংস্কারের ফলে বাংলা ও খ্রিষ্টীয় বর্ষপঞ্জিতে দিনের যে হেরফের এত দিন হতো তা আর হবে না। ফলে ২১শে ফেব্রুয়ারি ৮ই ফাল্গুন যেমন হবে তেমনি ভাবে অন্য দিনগুলোও একই ভাবে গণনা করা যাবে। এতে দিবস ভিত্তিক সব কর্মসূচি দুই বর্ষপঞ্জিতেই ঘটে যাওয়া দিনের সাথে মিল থাকবে। বাংলা একাডেমির এই উদ্যোগ বাংলা সন গণনায় নতুন যুগের যেমন সূচনা করলো ঠিক তেমনি সবার জন্যেই এর হিসেব রাখা সহজ হবে বলে আমরা মনে করি। বিজ্ঞান ভিত্তিক এই সংস্কারে যুক্তদের প্রতি রইল আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।

অক্টোবর ১৯
০৩:৩০ ২০১৯

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

বাবুর্চি থেকে হোটেল মালিক আফজাল

বাবুর্চি থেকে হোটেল  মালিক আফজাল

মাহফুজুর রহমান প্রিন্স, বাগমারা: ছিলেন বাবুর্চি এখন হোটেল মালিক। ৯০’ এর দশকে হোটেলের বয় হিসাবে যাত্রা শুরু এই যুবকের। আজ তিনি নিজেই একটি হোটেল পরিচালনা করছে। সুদীর্ঘ এই পেশাদার জীবনে অনেক পেয়েছেন। পেয়েছেন অর্থ, খ্যাতি, সম্মান ও সর্বোপরি সবার ভালোবাসা। এ ছাড়া বাগমারার সকল হোটেল কর্মচারিরা তাকে নেতাও বানিয়েছে। তিনি

বিস্তারিত




এক নজরে

চাকরি

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সানশাইন ডেস্ক: সদ্য কার্যকর হওয়া সরকারি চাকরি আইনের সংবিধানের সঙ্গে সাংঘর্ষিক সাতটি ধারা বাতিল বা প্রত্যাহার করতে স্পিকার ও ছয় সচিবকে আইনি নোটিস পাঠানো হয়েছে। হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের (এইচআরপিবি) পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মনজিল মোরসেদ রোববার রেজিস্ট্রি ডাকযোগে নোটিসটি পাঠিয়েছেন। স্পিকার, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, রাষ্ট্রপতি সচিবালয়ের সচিব, প্রধানমন্ত্রী

বিস্তারিত