Daily Sunshine

শিশির ভেজা পায়ে এলো হেমন্ত

Share

রোজিনা সুলতানা রোজি : বছর ঘুরে হেমন্ত এলো শিশির সিক্ত পায়ে…হাল্কা শীতের ছোঁয়া যেন লাগছে এসে গায়ে….। শরৎ শেষে হেমন্তের আগমনি বার্তা এখন প্রকৃতিতে। কালের পরিক্রমায় ভাদ্র-আশি^ন পেরিয়ে প্রকৃতিতে এলো হেমন্ত। আজ হেমন্তের প্রথম মাস কার্তিকের প্রথম দিন। আজ থেকেই গণনা শুরু হলো হেমন্তের। ষড়ঋতুর দেশে কার্তিক ও অগ্রহায়ণ এই দুই মাস হেমন্তকাল। ষড়ঋতুর এ দেশে হেমন্ত হলো চতুর্থ ঋতু।
অগ্রহায়ণের শেষ থেকেই শুরু হবে শীতকাল। তবে এখনই উত্তরাঞ্চলে দেখা দিয়েছে শীতের আগমনী বার্তা। সকাল এবং খুব ভোর বেলায় শরীরে অনুভূত হচ্ছে হালকা শীতল পরশ। খেজুর গাছে গাছে রস আহরণের জন্য গাছিরা প্রস্তুতি শুরু করেছে। সান্ধকালীন সিদ্ধডিম আর ভাপা পিঠার পসরাও বসতে শুরু করেছে নগরীর বিভিন্ন অলিগলিতে। লেপ-তোষক তৈরীর প্রস্তুতিও নিচ্ছেন ধুনকুররা।
তবে তার আগেই মাঠে মাঠে ফসলের প্রাচুর্য্যতা নিয়ে হাজির হয়েছে হেমন্ত। কিন্তু আগের মতো এখন আর হেমন্তের উৎসব রঙ ছড়ায় না কৃষকের আঙিনায়। মানুষের সংস্কৃতিগত পরিবর্তনের কারণে আচার অনুষ্ঠানে এমন পরিবর্তন বলে মনে করেন সাংস্কৃতিক কর্মীরা।
এখনই ভোর বেলায় কুয়াশার চাদরে ঢাঁকছে পথ-ঘাট, বিস্তীর্ণ ফসলের মাঠ। প্রভাতে কাঁচা হলুদের রঙ মেখে সূর্যের উপস্থিতি। সোনা রোদে ঝিলিক দিচ্ছে ঘাসের ডগা। ধান গাছের পাতায় জমাট বাঁধা স্নিগ্ধ শিশির। হেমন্তের সৌন্দর্য উপভোগের ফুরসত নেই গতরখাটা মানুষের।
বেলা বাড়ার সাথে সাথে ব্যস্ততা বাড়ে কৃষকের। নতুন ফসলের বীজ বুনতে মাটির বুকে চলে লাঙলের ফলা। নতুন সাজে ফসলের মাঠ। নির্মল প্রকৃতি আর দিগন্ত বিস্তৃত মাঠে পাকা ধানের সোনালী আভা। দখিনা বাতাসে দোল দিতে শুরু করেছে ধানের শীষ। আগাম আমন ধানে পাক ধরেছে। ধানের গোছায় কাঁচি দিতে শুরু করেছেন চাষিরা। এখনই নতুন ধানের গন্ধে কৃষকের ঠোটের কোণে খুশির ঝিলিক।

অক্টোবর ১৬
০৪:০৭ ২০১৯

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

জীবিকা যখন কান পরিস্কার

জীবিকা যখন কান পরিস্কার

স্টাফ রিপোর্টার: নগরীতে প্রায় ৪০ বছর ধরে কান পরিস্কার করে যাচ্ছেন চারঘাটের রতন আলী। তার বয়স এখন ৫৬ বছর চলছে। সেই ১৯৮০ সাল থেকে এ পেশায় জীবিকা নির্বাহ করছেন। রতন আলী চারঘাট উপজেলার খোর্দ্দগোবিন্দপুর চকরপাড়া থেকে প্রায় প্রতিদিনই রাজশাহী নগরীতে আসেন। নগরীর বিভিন্ন পাড়া মহল্লা অফিস ঘুরে ঘুরে কান পরিস্কার

বিস্তারিত




চাকরি

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সানশাইন ডেস্ক: সদ্য কার্যকর হওয়া সরকারি চাকরি আইনের সংবিধানের সঙ্গে সাংঘর্ষিক সাতটি ধারা বাতিল বা প্রত্যাহার করতে স্পিকার ও ছয় সচিবকে আইনি নোটিস পাঠানো হয়েছে। হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের (এইচআরপিবি) পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মনজিল মোরসেদ রোববার রেজিস্ট্রি ডাকযোগে নোটিসটি পাঠিয়েছেন। স্পিকার, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, রাষ্ট্রপতি সচিবালয়ের সচিব, প্রধানমন্ত্রী

বিস্তারিত