Daily Sunshine

প্রজনন মৌসুমে ইলিশ ধরতে মানা

Share

দেশে ইলিশের উৎপাদন যেমন বেড়েছে, তেমনি বেড়েছে এর আকার ও ওজন। প্রজনন মৌসুমে ইলিশ ধরা বন্ধ বিক্রি বিপণন ও মজুদের উপর নিষেধাজ্ঞা থাকায় গত দু’বছরে এই সাফল্য এসেছে উল্লেখযোগ্য পরিমাণে। আর এই বৃদ্ধির ফলে এবার বাজারে বড় আকারের মাছ কিনতে পেরেছেন ক্রেতারা। দামও কমেছে একই কারণে। ফলে সব পরিবারই ইলিশের স্বাদ নেয়ার সুযোগ পেয়েছিলেন। মাছ শিকারে নিষেধাজ্ঞা থাকার সময় জেলেরা দুঃখ কষ্ট পেলেও তাদের সে কষ্টও দূর হয়েছে ব্যাপক হারে জালে বড় আকারের ইলিশ উঠে আসায়।
ইলিশের এই বংশবৃদ্ধির ধারা অব্যাহত রাখতেই এখন দেশে ইলিশ ধরা বিক্রি পরিবহন মজুদ ও বাজারজাতকরণে নিষেধাজ্ঞা চলছে। গত ৯ই অক্টোবর এই সময় শুরু হয়েছে এবং তা ৩০শে অক্টোবর পর্যন্ত বলবৎ থাকবে। অর্থাৎ ২২ দিনের এই নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে মৎস্য প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়। এখন তাই বাজারে ইলিশ নাই, জেলেরাও বিকল্প কর্মসংস্থানে।
কিন্তু এই নিষেধাজ্ঞার ভেতরেও দেশের বিভিন্ন স্থানেই অবৈধ ভাবে ইলিশ ধরার চেষ্টা করছেন কোন কোন জেলে। এদের বিরুদ্ধে অভিযানও পরিচালিত হচ্ছে জব্দ করা হচ্ছে জাল ও জরিমানা করা হচ্ছে জেলেদের। নিষেধাজ্ঞার এই সময় যদি তা পুরোপুরি পালিত হয় তাতে লাভ জেলেদেরও। তারা সেটা বুঝছেন না বলে নদীতে জাল ফেলছেন। বিষয়টি উপলদ্ধি করতে হবে যেমন তাদের ঠিক তেমনি বোঝাতে হবে সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগকেও। এ জন্যে সচেতনতামূলক প্রচারাভিযান চালাতে হবে আর জেলেদের যে সহায়তা দেবার কথা তাও অব্যাহত রাখতে হবে। আমরা আশা করি এ ব্যাপারে যথাযথ উদ্যোগ ইলিশের উৎপাদন আরো বাড়তে সহায়ক হবে।

অক্টোবর ১৬
০৩:৪৮ ২০১৯

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

বাবুর্চি থেকে হোটেল মালিক আফজাল

বাবুর্চি থেকে হোটেল  মালিক আফজাল

মাহফুজুর রহমান প্রিন্স, বাগমারা: ছিলেন বাবুর্চি এখন হোটেল মালিক। ৯০’ এর দশকে হোটেলের বয় হিসাবে যাত্রা শুরু এই যুবকের। আজ তিনি নিজেই একটি হোটেল পরিচালনা করছে। সুদীর্ঘ এই পেশাদার জীবনে অনেক পেয়েছেন। পেয়েছেন অর্থ, খ্যাতি, সম্মান ও সর্বোপরি সবার ভালোবাসা। এ ছাড়া বাগমারার সকল হোটেল কর্মচারিরা তাকে নেতাও বানিয়েছে। তিনি

বিস্তারিত




এক নজরে

চাকরি

অনশনে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে রাজশাহী পাটকলের আট শ্রমিক

অনশনে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে রাজশাহী পাটকলের আট শ্রমিক

স্টাফ রিপোর্টার : অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিক-কর্মচারীদের পিএফ গ্রাচ্যুইটির টাকাসহ ১১ দফা দাবি বাস্তবায়নের দাবিতে আমরণ অনশনের মধ্যে রাজশাহী পাটকলের আটজন শ্রমিক অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। বৃহস্পতিবার সকালে তাদের রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এরা হলেন, আব্দুল গফুর, জয়নাল আবেদিন, আলতাফুন বেগম, মহসীন কবীর, আসলাম আলী, মোশাররফ হোসেন, মোজাম্মেল হক ও

বিস্তারিত