Daily Sunshine

খালের মুখে প্রভাবশালীদের ১০ পুকুর পাড় কেটে দিলেন কৃষক

Share

স্টাফ রিপোর্টার, বাগমারা: রাজশাহীর বাগমারার মাড়িয়া ইউনিয়নের কৃষকেরা আবাদি জমির জলাবদ্ধতা দূর করতে পুলিশের সহযোগিতায় প্রভাবশালীদের পুকুরের পাড় কেটে দিয়েছেন। স্থানীয় প্রভাবশালীরা পানির প্রবাহ বন্ধ করে মাড়িয়া এলাকায় খালের মুখে পুকুর খনন করেন। এর কারণে চার-পাঁচ বছর ধরে জলাবদ্ধতা তৈরি হয়। এতে প্রায় ৮০০ হেক্টর জমিতে চাষাবাদ হুমকীর মুখে পড়ে। তবে সোমবার স্থানীয় সাংসদের নির্দেশে পুলিশের সহযোগিতায় কৃষকেরা পুকুরের পাড় কেটে পানি নিষ্কাষনের ব্যবস্থা করেন।
প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, সোমবার সকালে উপজেলার মাড়িয়া ইউনিয়নের গোয়ালপাড়া, কাঁঠালবাড়ি, অনন্তপাড়াসহ আশপাশের গ্রামের ৩-৪ শ কৃষক সংঘবদ্ধ হয়ে খালের মুখে খনন করা পুকুরের পাড় কেটে দেওয়ার জন্য আসেন। এসময় স্থানীয় সাংসদ এনামুল হক বিষয়টি জানতে পারেন। তিনি কৃষকদের সহযোগিতা করার জন্য থানার পুলিশকে নির্দেশ দেন।
পরে পুলিশের সহযোগিতায় ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকেরা খালের মুখে খনন করা ১০টি পুকুরের পাড় কেটে পানি বের করে দেন। একযোগে এ কাজ চলে।
সানোয়ার হোসেন, বয়েন উদ্দিন, নাজমুল হকসহ ৩০-৪০জন কৃষক অভিযোগ করে বলেন, মাড়িয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি চেয়ারম্যান আসলাম আলীসহ স্থানীয় প্রভাবশালীরা খালের মুখ বন্ধ করে চার-পাঁচ বছর আগ থেকে পুকুর খনন করেন। সেখানে তারা মাছচাষ শুরু করেন তারা। এর কারণে জলাবদ্ধতার তৈরি হয়ে চাষাবাদ হুমকীর মুখে পড়ে। কৃষকেরাও চাষাবাদ নিয়ে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েন। তারা জলাবদ্ধতা দূর করার জন্য প্রশাসনের সহযোগিতাও কামনা করেন।
সোমবার দুপুরে সরেজমিনে ঘটনাস্থলে গিয়ে খালের মুখে খনন করা পুকুরের পাড় দিয়ে পানি বের হতে দেখা যায়। কৃষকেরা প্রশাসনের সহযোগিতা পেয়ে উল্লাস প্রকাশ করেন। তাদের ভাষ্য, পানি নিষ্কাশনের কারণে তারা কমপক্ষে ৮০০ হেক্টর জমিতে চাষাবাদ করতে পারবেন।
এসময় প্রভাবশালীরা পুকুরের মুখে জাল দিয়ে মাছ আটকানোর চেষ্টা করেন। মাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান আসলাম আলীসহ অন্যদের অভিযোগ, খালের মুখে নয়, কৃষকদের কাছ থেকে জমি ইজারা নিয়ে সেখানে পুকুর খনন করেছেন।
ভবানীগঞ্জ, চানপাড়া, যাত্রাগাছি ও তক্তপাড়া এলাকায় খালের মুখ বন্ধ করে বেশ কিছু পুকুর খনন করা হয়েছে। এর কারণে পানির প্রবাহ বন্ধ ও জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। তাদের পুকুরের পানি নামিয়ে মাছ চাষের ক্ষতি করা হয়েছে।
স্থানীয় সাংসদ এনামুল হক বলেন, কৃষকদের চাষাবাদের সুবিধার জন্য কোনো রকম বিশৃংখলা ছাড়াই সুষ্ঠু সুরাহার জন্য পুলিশকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সামান্য কয়েকজনের সুবিধার জন্য বিপুল পরিমান কৃষক ক্ষতিগ্রস্থ হবেন তা মেনে নেওয়া হবে না। কৃষকদের চাষাবাদেন জন্য সব ধরণের সহযোগিতা করা হবে।
বাগমারা থানার ওসি আতাউর রহমান বলেন, এমপি মহোদয়ের নির্দেশ মোতাবেক কৃষকদের পানি নিষ্কাশনে সহযোগিতা করা হয়েছে।

অক্টোবর ১৫
০৪:১০ ২০১৯

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

হেমন্তেই শীতের পদধ্বনি

ফয়সাল আলম: কুয়াশার চাদরে মুড়ে শীত আসছে। এখন যদিও হেমন্তকাল তবুও শীতের আগমনী বার্তা শুরু হয়েছে রাজশাহী অঞ্চলে। কমতে শুরু করেছে তাপমাত্রা, অনুভূত হচ্ছে শীতের পদধ্বনি। সন্ধ্যার পর থেকেই শীত অনুভূত হচ্ছে। রাতে ও মধ্যরাতে অনুভূত হচ্ছে আরও বেশী। জেলা শহর ও সীমান্তবর্তী উপশহরসহ গ্রামাঞ্চলে শীত পড়তে শুরু করেছে। সন্ধ্যালগ্নে

বিস্তারিত




এক নজরে

চাকরি

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সানশাইন ডেস্ক: সদ্য কার্যকর হওয়া সরকারি চাকরি আইনের সংবিধানের সঙ্গে সাংঘর্ষিক সাতটি ধারা বাতিল বা প্রত্যাহার করতে স্পিকার ও ছয় সচিবকে আইনি নোটিস পাঠানো হয়েছে। হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের (এইচআরপিবি) পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মনজিল মোরসেদ রোববার রেজিস্ট্রি ডাকযোগে নোটিসটি পাঠিয়েছেন। স্পিকার, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, রাষ্ট্রপতি সচিবালয়ের সচিব, প্রধানমন্ত্রী

বিস্তারিত