Daily Sunshine

বাঘায় চার ইউপি’র তিনটিতে আ’লীগ একটিতে বিএনপির চেয়ারম্যান বিজয়ী

Share

স্টাফ রিপোর্টার, বাঘা : রাজশাহীর বাঘায় কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই ১৭ বছর পর ব্যাপক উৎসাহ উদ্দিপনার মধ্য দিয়ে চারটি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এই নির্বাচনে আওয়ামী লীগের ৩ জন ও বিএনপি সমর্থিত ১ জন প্রার্থী চেয়ারম্যান হিসাবে বিজয়ী হয়েছেন।
বিজয়ীরা হলেন, বাজুবাঘায় ফিরোজ আহাম্মেদ রঞ্জু (আনারস), গড়গড়িতে রবিউল ইসলাম (নৌকা) পাকুড়িয়ায় মেরাজুল ইসলাম মেরাজ (নৌকা) এবং মনিগ্রাম ইউনিয়নে সাইফুল ইসলাম (নৌকা)।
উপজেলা নির্বাচন অফিস ও স্থানীয় বিভিন্ন সূত্রে পাওয়া তথ্যে জানা যায়, চারটি ইউনিয়নের মধ্যে গড়গড়ি ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের প্রার্থী রবিউল ইসলাম রবি নৌকায় ৪ হাজার ১০৪ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির স্থানীয়ভাবে মনোনীত প্রার্থী মাসুদ করিম টিপু (টেবিল ফ্যান) পেয়েছেন ২ হাজার ৬৫৬ ভোট। বাজুবাঘা ইউনিয়নে বিএনপির স্থানীয়ভাবে মনোনীত প্রার্থী ফিরোজ আহম্মেদ (আনারস) ৩ হাজার ৬৯৮ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের প্রার্থী ফজলুর রহমান (নৌকা) ভোট পেয়েছেন ৩ হাজার ৫৯৮ ভোট। পাকুড়িয়া ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের প্রার্থী মেরাজুল ইসলাম মেরাজ নৌকায় ৭ হাজার ৬৭৫ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছে। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির স্থানীয়ভাবে মনোনীত প্রার্থী ৫ হাজার ১৬৫ ভোট পেয়েছেন।
এদিকে মনিগ্রাম ইউনিয়নে আ’লীগের মনোনীত প্রার্থী সাইফুল ইসলাম (নৌকা) ৯ হাজার ৬৩১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছে। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির স্থানীয়ভাবে মনোনীত প্রার্থী ৯ হাজার ১৮৮ ভোট পেয়েছেন। বাঘা উপজেলা সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও নির্বাচন অফিসার মুজিবুল আলম জানান, ৪টি ইউনিয়নে কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

অক্টোবর ১৫
০৪:০৯ ২০১৯

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

হেমন্তেই শীতের পদধ্বনি

ফয়সাল আলম: কুয়াশার চাদরে মুড়ে শীত আসছে। এখন যদিও হেমন্তকাল তবুও শীতের আগমনী বার্তা শুরু হয়েছে রাজশাহী অঞ্চলে। কমতে শুরু করেছে তাপমাত্রা, অনুভূত হচ্ছে শীতের পদধ্বনি। সন্ধ্যার পর থেকেই শীত অনুভূত হচ্ছে। রাতে ও মধ্যরাতে অনুভূত হচ্ছে আরও বেশী। জেলা শহর ও সীমান্তবর্তী উপশহরসহ গ্রামাঞ্চলে শীত পড়তে শুরু করেছে। সন্ধ্যালগ্নে

বিস্তারিত




এক নজরে

চাকরি

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সানশাইন ডেস্ক: সদ্য কার্যকর হওয়া সরকারি চাকরি আইনের সংবিধানের সঙ্গে সাংঘর্ষিক সাতটি ধারা বাতিল বা প্রত্যাহার করতে স্পিকার ও ছয় সচিবকে আইনি নোটিস পাঠানো হয়েছে। হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের (এইচআরপিবি) পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মনজিল মোরসেদ রোববার রেজিস্ট্রি ডাকযোগে নোটিসটি পাঠিয়েছেন। স্পিকার, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, রাষ্ট্রপতি সচিবালয়ের সচিব, প্রধানমন্ত্রী

বিস্তারিত