Daily Sunshine

ব্র্যাকের কর্মসূচি দারিদ্র্য নিরসনে গুরুত্বপূর্ণ উদ্যোগ

Share

স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহী জেলায় ব্র্যাকের আলট্রা-পুওর গ্র্যাজুয়েশন প্রোগ্রামের কার্যক্রম পরিদর্শন করেছেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মুহাম্মদ শরিফুল হক। সোমবার তিনি ব্র্যাকের এই কর্মসূচির মোহনপুর উপজেলার সইপাড়া গ্রামে অংশগ্রহণকারীদের বাড়ি পরিদর্শন করেন এবং তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন।
এসময় তিনি ব্র্যাকের কর্মসূচি দারিদ্র্য নিরসনে গুরুত্বপূর্ণ বলে মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, এই কর্মসূচির গ্রাজুয়েট সদস্যদের নিয়মিত ফলোআপে রাখলে এবং সম্পদ নিয়ে উন্নতি না করে ব্যর্থ সদস্যদের কারণ চিহ্নিত করে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করলে আরও ভাল হবে।
১৭ই অক্টোবর আন্তর্জাতিক দারিদ্র্য বিমোচন দিবস। জাতিসংঘ এ বছরের আন্তর্জাতিক দারিদ্র্য বিমোচন দিবসের মূল প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করেছে ‘পরিবার, শিশু ও সমাজের ক্ষমতায়ন, সকলের অংশ গ্রহণে দারিদ্র্য বিমোচন’। দিবসটিকে কেন্দ্র করে বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ব্র্যাক বাংলাদেশসহ আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অক্টোবর মাসব্যাপী নানা কার্যক্রম হাতে নিয়েছে। তারই অংশ হিসেবে ব্র্যাকের আলট্রা-পুওর গ্র্যাজুয়েশন প্রোগ্রাম বর্তমানে রাজশাহীসহ ৪৩টি জেলায় চলমান রয়েছে। সঙ্গে আয়োজন করা হয়েছে সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসকের মাঠ পরিদর্শন কার্যক্রম।
এসময় তাঁর সঙ্গে আরও উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ অন্তিম কুমার সরকার, মোহনপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সানওয়ার হোসেন, উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ সাইফুল ইসলাম প্রমূখ।
প্রোগ্রাম উপস্থাপনা করেন জোনাল ম্যানেজার বাবুল আক্তার। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন জেলা ব্র্যাক প্রতিনিধি একেএম জাহেদুল ইসলাম। প্রোগ্রামের যাবতীয় সহযোগিতায় ছিলেন আরএম, বিএম, লার্নিং ম্যানেজার, এইচআর’র জোনাল ম্যানেজার ও অন্যান্য কর্মীবৃন্দ।
ব্র্যাকের পক্ষ থেকে জানানো হয়, সরকারের মাঠ পর্যায়ে তথা জেলা প্রশাসনকে আলট্রা-পুওর গ্র্যাজুয়েশন প্রোগ্রাম বিষয়ে সম্যক ধারণা দেওয়া এবং জেলা পর্যায়ে সংশ্লিষ্ট সরকারি প্রতিষ্ঠানসমূহের কাছে কর্মসূচিটির অভিজ্ঞতালব্ধ জ্ঞান তুলে ধরা এই উদ্যোগের লক্ষ্য। যা ভবিষ্যতে সরকারের সঙ্গে সমন্বিতভাবে কাজ করার পরিবেশ তৈরিতে অবদান রাখবে। একই সঙ্গে বাংলাদেশ থেকে অতি দারিদ্র্য দূরীকরণে আলট্রা-পুওর গ্র্যাজুয়েশন প্রোগ্রাম কী ভাবে অবদান রাখতে পারে, সে বিষয়ে জেলা প্রশাসন এবং অন্যান্য সরকারি কর্মকর্তাদের পরামর্শ গ্রহণ করা, যা ব্র্যাকের ভবিষ্যত করণীয় নির্ধারণে সহায়ক হবে।
উল্লেখ্য, রাজশাহী জেলায় ২০১০ সালে আলট্রা-পুওর গ্র্যাজুয়েশন প্রোগ্রামের কার্যক্রম শুরু হয়। ২০১৮ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত এই জেলায় ২৩৩৭১টি অতি দরিদ্র পরিবার ব্র্যাকের আলট্রা-পুওর গ্র্যাজুয়েশন প্রোগ্রামের আওতায় এসেছে। এবছর কর্মসূচিতে অংশ নিচ্ছেন জেলার ৮ উপজেলার ৩৫৭০টি অতি দরিদ্র পরিবার। ২০০২ সাল থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশের ৪৭টি জেলার বিশ লক্ষের বেশি অতিদরিদ্র পরিবার আলট্রা-পুওর গ্র্যাজুয়েশন প্রোগ্রামের আওতায় এসেছেন। যাদের ৯৫ ভাগ কর্মসূচি শেষ হয়ে যাওয়ার পর দীর্ঘ মেয়াদে তাদের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের ধারা বজায় রাখতে সক্ষম হয়েছে।

অক্টোবর ১৫
০৪:০৬ ২০১৯

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

হেমন্তেই শীতের পদধ্বনি

ফয়সাল আলম: কুয়াশার চাদরে মুড়ে শীত আসছে। এখন যদিও হেমন্তকাল তবুও শীতের আগমনী বার্তা শুরু হয়েছে রাজশাহী অঞ্চলে। কমতে শুরু করেছে তাপমাত্রা, অনুভূত হচ্ছে শীতের পদধ্বনি। সন্ধ্যার পর থেকেই শীত অনুভূত হচ্ছে। রাতে ও মধ্যরাতে অনুভূত হচ্ছে আরও বেশী। জেলা শহর ও সীমান্তবর্তী উপশহরসহ গ্রামাঞ্চলে শীত পড়তে শুরু করেছে। সন্ধ্যালগ্নে

বিস্তারিত




এক নজরে

চাকরি

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সানশাইন ডেস্ক: সদ্য কার্যকর হওয়া সরকারি চাকরি আইনের সংবিধানের সঙ্গে সাংঘর্ষিক সাতটি ধারা বাতিল বা প্রত্যাহার করতে স্পিকার ও ছয় সচিবকে আইনি নোটিস পাঠানো হয়েছে। হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের (এইচআরপিবি) পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মনজিল মোরসেদ রোববার রেজিস্ট্রি ডাকযোগে নোটিসটি পাঠিয়েছেন। স্পিকার, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, রাষ্ট্রপতি সচিবালয়ের সচিব, প্রধানমন্ত্রী

বিস্তারিত