Daily Sunshine

সাবিলার বিয়ে এ মাসেই

Share

সানশাইন ডেস্ক: ‘সানাইয়ের সুর নিয়ে যাবে দূর, একটু একটু করে তোমায়। আজকে রাতে তুমি অন্যের হবে, ভাবতেই জলে চোখ ভিজে যায়’। হ্যা, আগামী ২৫ অক্টোবর হয়তো ব্যান্ড তারকা হাসানের এই গানটির মতো অনেক যুবকেরই জলে চোখ ভিজে যাবে। কারণ ওইদিনই একজনের হয়ে যাবেন নাট্য জগতের এই সময়ের জনপ্রিয় অভিনেত্রী সাবিলা নূর।
অতি সম্প্রতি অভিনেত্রী নিজেই গণমাধ্যমকে এ সুখবরটি জানিয়েছেন। সাবিলার হবু বরও মিডিয়া জগতের মানুষ। নাম নেহাল সুনন্দ তাহের। চাঁদপুরের ছেলে। তবে তিনি মডেলিং, অভিনয় বা সংগীত জগতের সঙ্গে যুক্ত নন। নেহাল বেসরকারি চ্যানেল এসএ টিভির ব্রডকাস্ট প্রকৌশলী।
এই যুবকের সঙ্গে সাবিলা নূরের পরিচয় তিন বছর আগে। সে সময় তাদের দুজনকে পরিচয় করিয়ে দিয়েছিলেন অভিনেতা তৌসিফ মাহবুব। যিনি সাবিলার ভালো বন্ধু হিসেবে পরিচিত। পরবর্তীতে নেহালের সঙ্গেও ভালো বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে সাবিলার।
শুরুর দিকে সেই বন্দুত্বই দিনে দিনে বিশেষ সম্পর্কের দিকে নিয়ে যায় সাবিলা ও নেহালকে। তাদের প্রেম হয়। একপর্যায়ে দুজনে সিদ্ধান্ত নেন, বাকি জীবনটা একসঙ্গে কাটাবেন। সে অনুযায়ী বুকে অসীম সাহস নিয়ে সরাসরি সাবিলার মায়ের কাছে মেয়েকে চেয়ে বসেন নেহাল।
সাবিলা জানান, ‘প্রস্তাব দেয়ার পর আমাদের পরিবার থেকে সময় নিয়েছিল। তিন মাস আগে দুই পরিবার আমাদের বিয়ে নিয়ে আনুষ্ঠানিক কথাবার্তা বলেছে। ২৫ অক্টোবর বিয়ের দিন ঠিক হয়েছে। তার আগের দিন ঢাকার একটি ক্লাবে গায়ে হলুদের অনুষ্ঠান। এরপর ২৭ অক্টোবর হবে বউভাত।
হবু বরের প্রশংসা করে অভিনেত্রী বলেন, ‘নেহাল আমাকে খুব ভালো বোঝে। আমার কাজের ব্যাপারেও ওর সমর্থন আছে। কঠিন সময়ে ও আমার পাশে ছিল। সেই মানুষটি জীবনসঙ্গী হতে যাচ্ছে ভেবে ভালো লাগছে। ভক্ত-শুভাকাঙ্ক্ষীদের কাছে আমাদের নতুন জীবনের জন্য দোয়া চাই।’

অক্টোবর ১৫
০৪:০৫ ২০১৯

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

হেমন্তেই শীতের পদধ্বনি

ফয়সাল আলম: কুয়াশার চাদরে মুড়ে শীত আসছে। এখন যদিও হেমন্তকাল তবুও শীতের আগমনী বার্তা শুরু হয়েছে রাজশাহী অঞ্চলে। কমতে শুরু করেছে তাপমাত্রা, অনুভূত হচ্ছে শীতের পদধ্বনি। সন্ধ্যার পর থেকেই শীত অনুভূত হচ্ছে। রাতে ও মধ্যরাতে অনুভূত হচ্ছে আরও বেশী। জেলা শহর ও সীমান্তবর্তী উপশহরসহ গ্রামাঞ্চলে শীত পড়তে শুরু করেছে। সন্ধ্যালগ্নে

বিস্তারিত




এক নজরে

চাকরি

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সানশাইন ডেস্ক: সদ্য কার্যকর হওয়া সরকারি চাকরি আইনের সংবিধানের সঙ্গে সাংঘর্ষিক সাতটি ধারা বাতিল বা প্রত্যাহার করতে স্পিকার ও ছয় সচিবকে আইনি নোটিস পাঠানো হয়েছে। হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের (এইচআরপিবি) পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মনজিল মোরসেদ রোববার রেজিস্ট্রি ডাকযোগে নোটিসটি পাঠিয়েছেন। স্পিকার, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, রাষ্ট্রপতি সচিবালয়ের সচিব, প্রধানমন্ত্রী

বিস্তারিত