Daily Sunshine

রাজশাহীতে হচ্ছে বঙ্গবন্ধুর সবচেয়ে বড় ম্যুরাল

Share

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহীতে দেশের সর্ববৃহৎ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরাল নির্মাণ হতে যাচ্ছে। শনিবার বেলা ১১টায় মহানগরীর সিএন্ডবি মোড়ে ফলক উন্মোচনের মাধ্যমে ম্যুরাল নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন রাসিক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল বাংলাদেশে অনেক আছে। কিন্তু রাজশাহীতে যে ম্যুরাল তৈরি করা হবে, এটি হবে বাংলাদেশের মধ্যে সর্ববৃহৎ ও সবচেয়ে সুন্দর, দৃষ্টিনন্দন। দেখে মনে হবে-এইতো বঙ্গবন্ধু, যিনি নেতৃত্ব দিয়ে বাংলাদেশকে স্বাধীন করেছেন। বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালটি দেখে দূর থেকে মানুষের মনটা ভরে যাবে। বঙ্গবন্ধুর ঋণ শোধ করার নয়, এই কাজের মাধ্যমে আমরা তৃপ্তি পাব। আশা করছি আগামী বছরের ১৭ই মার্চ বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনে এইখানে শ্রদ্ধাঞ্জলি জানানোর মাধ্যমে রাজশাহীতে বঙ্গবন্ধুর শতবার্ষিকী উদ্যাপন উৎসব শুরু হবে।
অনুষ্ঠানে বিভাগীয় কমিশনার নূর-উর রহমান বলেন, নগরীর গুরুত্বর্পূণ সড়কের পাশে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালটি তৈরি করতে যাচ্ছে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন। এরপাশে দিয়ে যারা যাবেন, তারাসহ বিশেষ করে শিক্ষার্থীরা বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল দেখতে পাবেন, জাতির পিতার অবদান সম্পর্কে জানতে পারবেন এবং জানার আগ্রহ বাড়বে।
সিটি কর্পোরেশনের পার্ক ও বিনোদন স্পট ব্যবস্থাপনা স্থায়ী কমিটির সভাপতি কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য দেন রাসিকের প্যানেল মেয়র-১ সরিফুল ইসলাম বাবু, জেলা প্রশাসক মো. হামিদুল হক, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী সরকার।
অনুষ্ঠানে রাসিকের প্যানেল মেয়র-৩ তাহেরা খাতুন মিলি, ৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রেজাউন নবী দুদু, ২২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল হামিদ সরকার টেকনসহ অন্যান্য কাউন্সিলরবৃন্দ, প্রধান প্রকৌশলী আশরাফুল হক, মেয়র‘র একান্ত সচিব মো. আলমগীর কবিরসহ অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
রাসিকের প্রধান প্রকৌশলী আশরাফুল হক বলেন, দেশের মধ্যে সবচেয়ে বড় বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল হবে এটি। এই স্থানটি হবে অন্যতম দৃষ্টিনন্দন ও আকর্ষণীয়। বঙ্গবন্ধুর এই ম্যুরাল নির্মাণে প্রায় ৫ কোটি টাকা ব্যয় হবে।

সেপ্টেম্বর ১৫
০৪:২৬ ২০১৯

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

সাইকেলে স্কুলযাত্রায় ওরা

সাইকেলে স্কুলযাত্রায় ওরা

রোজিনা সুলতানা রোজি : এমন এক সময় ছিল যখন মেয়েদের সাইকেল চালানোকে সমাজ নেতিবাচক দিক হিসেবেই দেখতো। মেয়েদের অল্প বয়সে বিয়ে দেয়া হত যখন তারা বুঝতোই না যে বিয়ে কি? সাইকেল চালানো তো দূরের কথা মেয়েদের পড়ালেখারও তেমন সুযোগ দেয়া হত না। কিন্তু সমাজ আজ আধুনিকতার ছোঁয়ায় সচেতন হয়েছে। সমাজের

বিস্তারিত




এক নজরে

চাকরি

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সানশাইন ডেস্ক: সদ্য কার্যকর হওয়া সরকারি চাকরি আইনের সংবিধানের সঙ্গে সাংঘর্ষিক সাতটি ধারা বাতিল বা প্রত্যাহার করতে স্পিকার ও ছয় সচিবকে আইনি নোটিস পাঠানো হয়েছে। হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের (এইচআরপিবি) পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মনজিল মোরসেদ রোববার রেজিস্ট্রি ডাকযোগে নোটিসটি পাঠিয়েছেন। স্পিকার, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, রাষ্ট্রপতি সচিবালয়ের সচিব, প্রধানমন্ত্রী

বিস্তারিত