Daily Sunshine

রাজশাহীতে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন

Share

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহীতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট (বালক, অনূর্ধ্ব-১৭) ও বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিব জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট (বালিকা-অনূর্ধ্ব-১৭) শুরু হয়েছে। সোমবার বিকেলে মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি স্টেডিয়ামে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বেলুন উড়িয়ে টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করেন রাজশাহী সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন।
অনুষ্ঠানে মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, শারীরিক ও মন গঠনে খেলাধূলা গুরুত্বর্পূণ ভুমিকা পালন করে। যেসব ছেলে-মেয়েরা খেলাধূলা করে, তারা খারাপ কাজ করতে পারে না। পড়াশোনার পাশাপাশি খেলাধূলাকেও বিশেষ গুরুত্ব দিয়েছে বর্তমান সরকার।
মেয়র বলেন, বাংলাদেশের মেয়েরা ফুটবলে ভালো খেলছে। বিভিন্ন আন্তর্জাতিক খেলায় ভাল পর্যায়ে আছে। কিন্তু ছেলেরা বিশ^ ফুটবলে অনেক পিছিয়ে আছে, একেবারে শেষের দিকে আছে। তবে আমরা মনে আশা করতেই পারি, হয়তো আগামীতে এদেশের ছেলেরা ফুটবলেও ভালো করবে। পরিবেশে আমি বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের সাফল্য কামনা করছি।
অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মুহাম্মদ শরিফুল হকের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার নূর উর রহমান, আরএমপি পুলিশ কমিশনার হুমায়ুন কবির, জেলা প্রশাসক হামিদুল হক, জেলা পুলিশ সুপার মোঃ শহীদুল্লাহ, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার প্রমুখ। উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে রেফারি, কোচ ও খেলোয়াড়বন্দের সাথে কুশল বিনিময় করেন মেয়র।
এদিকে অনুষ্ঠানের শুরুতে জাতীয় পতাকা উত্তোলন এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ তাঁর পরিবারের সকল শহীদবৃন্দ, জাতীয় চার নেতাসহ মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। এরআগে খেলোয়াড়বৃন্দ ও শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি নগরীর বিভিন্ন এলাকা প্রদক্ষিণ করে।
উল্লেখ্য, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় রাজশাহী জেলা প্রশাসন আয়োজিত এই টুর্নামেন্টে সিটি কর্পোরেশনের চারটি এবং ৯টি উপজেলার দল এই খেলায় অংশ নিয়েছে।

সেপ্টেম্বর ১০
০৩:২৪ ২০১৯

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

তবুও স্বপ্ন দেখেন আকবর

তবুও স্বপ্ন দেখেন আকবর

মাহবুব মোরসেদ : আকবর আলী। বয়স ৪৮ বছর। চার ভাই ও এক বোন। পিতা আব্দুল্লাহ। বাড়ী নওগাঁ জেলার সাপাহার উপজেলার আই-হাই গ্রামে। বাবা-মা মারা গেছে অনেক আগে। সীমান্তবর্তী এই উপজেলার সীমান্ত ঘেঁষা গ্রাম এটি। কাজের সন্ধানে অনেক বছর আগে অন্য দেশে পাড়ি জমায় অন্য তিন ভাই, মোনতাজ, লতিফ ও বাবু।

বিস্তারিত




এক নজরে

চাকরি

অনশনে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে রাজশাহী পাটকলের আট শ্রমিক

অনশনে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে রাজশাহী পাটকলের আট শ্রমিক

স্টাফ রিপোর্টার : অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিক-কর্মচারীদের পিএফ গ্রাচ্যুইটির টাকাসহ ১১ দফা দাবি বাস্তবায়নের দাবিতে আমরণ অনশনের মধ্যে রাজশাহী পাটকলের আটজন শ্রমিক অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। বৃহস্পতিবার সকালে তাদের রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এরা হলেন, আব্দুল গফুর, জয়নাল আবেদিন, আলতাফুন বেগম, মহসীন কবীর, আসলাম আলী, মোশাররফ হোসেন, মোজাম্মেল হক ও

বিস্তারিত