Daily Sunshine

যৌলুস হারাচ্ছে শিশু পার্ক

Share

নাছের ফাহিম: রাজশাহী নগরীতে বিনোদনের জায়গা হাতেগোনা। এ অল্প সংখ্যক বিনোদন কেন্দ্রগুলোর মধ্যে শিশুপার্ক অন্যতম। রাজশাহীর শিশুরা ছুটি পেলেই ছুটে যায় ওই পার্কে। তবে যতো দিন যাচ্ছে শিশুদের বিনোদনের ওই জায়গাটা সুনাম হারাচ্ছে। শিশুদের খেলার অনেক রাইডার নষ্ট হয়ে পড়ে আছে। নেই সংস্কারের উদ্যোগ। দুর থেকেও বেড়াতে এসে পার্কটি নিয়ে অনেকেই এখন হতাশা প্রকাশ করেন।
রাজশাহী জেলা সদরের নওদাপাড়া বড় বনগ্রামে এই শিশু পার্কটি অবস্থিত। ২০০৫ সালে শহীদ জিয়া শিশু পার্কটি নির্মাণে ব্যয় করা হয় ১১ কোটি টাকারও বেশী। ২০০৬ সালে জন-সাধারণের জন্য খুলে দেয়া হয় পার্কটি। ১২ দশমিক ২১ একর জায়গা জুড়ে পার্কটিতে স্থাপন করা হয়েছিল ১৯টি আইটেমের ৭০টি গেমস প্লে। আইটেমগুলো হচ্ছে মেরী গো রাউন্ড, মিনি রেলকার, মনোরেল স্কাই বাইক, ফ্লুম রাইডস, অক্টোপাস, সুপার সুইং, বাম্পার কার, বাম্পার বোট, কিডি রাইডস, ফিজিওলজিক্যাল গেমস, থ্রিডি মুভি থিয়েটার, পেডেল বোট, বাউন্সি ক্যাসেল, হর্স রাইড, ফ্রগ জাম্প, হানি সুইং, প্যারাট্রুপার, টি কাপ ও ব্যাটারী কার।
কিন্তু বর্তমানে পার্কটিতে অনেক সেবার কোনো সন্ধান মেলেনা। নেই কোনো বাম্পার কার। সেখানে এখন রাখা হয় পার্ক কর্মীদের সাইকেল। বাম্পার বোটগুলো রয়েছে পরিত্যক্ত অবস্থায়। ১৯টি আইটেম থাকার কথা থাকলেও অল্প সংখ্যক রাইডার চালু আছে। পার্কের মূল যে আর্কষণ বাম্পার কার, ফুলুম রাইট, বাম্পার বোট, ব্যাটারী কার, বড় বাউন্স টিকার, হর্স রাইট, এই সব আইটেম গুলো প্রায় ৬ থেকে ৭ বছর আগেই নষ্ট হয়ে পড়ে আছে। দীর্ঘ দিন পড়ে থাকার কারনে মরিচা ধরে অস্তিত্ব হারাতে বসেছে এই সব রাইডার।
নাটোর থেকে ঘুরতে আসা নয়ম কুমার বলেন, সুন্দর ছবি দেখে ও অনেক রাইড আছে শুনে এখানে আাসি। তবে আর হয়তো আসবোনা। চারিদিকে প্রচণ্ড রোদ আর গরম। বাচ্চারা কষ্ট পাচ্ছে। বিশ্রাম নেয়ার মত ভালো স্থানও নেই।
সাদিয়া সুলতানা বলেন, পার্কের পরিবেশ সুন্দর। ফুলের গাছগুলো ভালো লাগে। তবে রাইড গুলোর ভাড়া কম হলে ভালো হতো। আর বাচ্চাকে নিয়ে এক সাথে রাইডে চড়তে পারবো এমন রাইডগুলো চালু থাকলে ভালো হতো।
এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে নাম প্রকাশ না করার শর্তে পার্কের দায়িত্বে থাকা একজন কর্মকর্তা জানান, পার্ক এর উন্নয়ন কাজ চলছে। জুনের বাজেটের পর রাইডগুলো মেরামত করতে পারবে বলে আশা করছেন তারা।

এপ্রিল ০২
০৩:২০ ২০১৯

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

বাবুর্চি থেকে হোটেল মালিক আফজাল

বাবুর্চি থেকে হোটেল  মালিক আফজাল

মাহফুজুর রহমান প্রিন্স, বাগমারা: ছিলেন বাবুর্চি এখন হোটেল মালিক। ৯০’ এর দশকে হোটেলের বয় হিসাবে যাত্রা শুরু এই যুবকের। আজ তিনি নিজেই একটি হোটেল পরিচালনা করছে। সুদীর্ঘ এই পেশাদার জীবনে অনেক পেয়েছেন। পেয়েছেন অর্থ, খ্যাতি, সম্মান ও সর্বোপরি সবার ভালোবাসা। এ ছাড়া বাগমারার সকল হোটেল কর্মচারিরা তাকে নেতাও বানিয়েছে। তিনি

বিস্তারিত




এক নজরে

চাকরি

অনশনে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে রাজশাহী পাটকলের আট শ্রমিক

অনশনে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে রাজশাহী পাটকলের আট শ্রমিক

স্টাফ রিপোর্টার : অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিক-কর্মচারীদের পিএফ গ্রাচ্যুইটির টাকাসহ ১১ দফা দাবি বাস্তবায়নের দাবিতে আমরণ অনশনের মধ্যে রাজশাহী পাটকলের আটজন শ্রমিক অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। বৃহস্পতিবার সকালে তাদের রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এরা হলেন, আব্দুল গফুর, জয়নাল আবেদিন, আলতাফুন বেগম, মহসীন কবীর, আসলাম আলী, মোশাররফ হোসেন, মোজাম্মেল হক ও

বিস্তারিত