Daily Sunshine

পত্নীতলায় ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে কলেজ ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগ

Share

সানশাইন ডেস্ক : নওগাঁর পত্নীতলা উপজেলার দিবর ইউনিয়নে এক কলেজ ছাত্রীর সাথে আপত্তিকর সম্পর্কের অভিযোগ উঠেছে পার্শ্বের নজিপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সাদেক উদ্দীনের বিরুদ্ধে। বিয়ের চাপ দিতেই, পাওনা টাকার মিথ্যা দাবি চাপানো হচ্ছে ওই ছাত্রীর উপর। এমনকি অভিযোগ ঠেকাতে চৌকিদারী পাহারায় অবরুদ্ধ রাখা হয়েছে ভিকটিমের পরিবারকে। এঘটনার ওই ছাত্রী প্রতিকার চেয়ে জেলা পুলিশ সুপারের হস্তক্ষেপ কামনা করেও কোনো প্রতিকার পাননি। সে উপজেলার দিবর ইউনিয়নের বাকরইল গুচ্ছগ্রামের মৃত অনিল চন্দ্রের মেয়ে তিনি সাপাহার সরকারি কলেজের অনার্স ৩য় বর্ষের ছাত্রী। এ ঘটনায় এখন ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী।

ভিকটিমের অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, নজিপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান দীর্ঘ ৫বছর ধরে বিয়ের কথা বলে দৈহিক সর্ম্পক চালিয়ে আসছিলো। দৈহিক সর্ম্পকের ফলে এক পর্যায়ে ওই ছাত্রী গর্ভবতী হয়ে পড়লে বাচ্চা নষ্ট করার জন্য ওই ইউপি চেয়ারম্যান চাপসৃষ্টি করেন। ওই ছাত্রী তার গর্ভের বাচ্চা নষ্ট করতে না চাইলে চেয়ারম্যান তার ছোট মেয়ের বিয়ের পর তারা আনুষ্টানিকভাবে বিয়ে করবে বলে বাচ্চাটি নষ্ট করতে বাধ্য করেন। সম্প্রতি তাকে বিয়ের করার কথা বললে ভিকটিমের কাছে ৪০লাখ টাকা চাঁদা দাবী করেন চেয়ারম্যান সাদেক।

অভিযোগ ঠেকাতে গত সোমবার থেকে চৌকিদারী পাহারায় অবরুদ্ধ রাখা হয়েছে ভিকটিমের পরিবারকে। এতে সহযোগীতা করছেন দিবর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল হামিদ সরকার ও দিবর ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি হারুন-অর রশীদ।

ভিকটিমের মা দৈব্য বালা অভিযোগ করে বলেন, স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহল ওই চেয়ারম্যানের সঙ্গে আতাঁত করে ঘটনাটি ধামা চাপা দেয়ার চেষ্টা করছে। সেই সঙ্গে ৪০ লাখ টাকার চাঁদা দাবী করছে। আমারা নিজেরায় আশ্রয়ণ প্রকল্পে সহায়তায় গুচ্ছগামে বসাস করছি। মানুষের বাড়িতে দিন মজুরের কাজ করে জিবীকা নির্বাহ করে থাকি। বর্তমানে মেয়েকে নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।

অভিযুক্ত নজিপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যন ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সাদেক উদ্দিন সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি এবিষয়ে কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি।

এবিষয়ে দিবর ইউপির চেয়ারম্যান আব্দুল হামিদ মাষ্টার বলেন, নজিপুর ইউপির চেয়ারম্যান সাদেক এর সাথে ওই মেয়েটি অবৈধ সম্পর্ক ছিল কথাটি সত্য। মেয়েটি তার কাছে টাকা নিয়েছে বলে শুনেছি। তাই মেয়েটি যেন কোথাও পালাতে না পারে সে জন্য আমি গ্রাম পুলিশদের দেখতে বলেছি।

এবিষয়ে পত্নীতলা থানার ওসি পরিমল কুমার চক্রবর্তী বলেন, গ্রাম পুলিশকে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। বিষয়টি সমাধান করার জন্য আমরা উভয় পক্ষকে ডেকেছি। ধর্ষনের মামলা রুজু না করে উল্টো ভিকটিমের বিরুদ্ধে সালিশের সমাধান করার এখতিয়ার পুলিশের আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, এসপি স্যারের নির্দেশেই ডাকা হয়েছে।

এবিষয়ে নওগাঁ জেলা পুলিশ সুপার প্রকৌশলী আব্দুল মান্নান মিয়া সাথে যোগযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমি ওই ছাত্রীকে উদ্ধারের জন্য থানা পুলিশকে বলেছি। বিষয়টি তদন্ত করে সত্যতা যাচাই পূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সানশাইন/০৭ নভেম্বর/ রোজি

নভেম্বর ০৭
১৪:০৮ ২০১৯

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

হেমন্তেই শীতের পদধ্বনি

ফয়সাল আলম: কুয়াশার চাদরে মুড়ে শীত আসছে। এখন যদিও হেমন্তকাল তবুও শীতের আগমনী বার্তা শুরু হয়েছে রাজশাহী অঞ্চলে। কমতে শুরু করেছে তাপমাত্রা, অনুভূত হচ্ছে শীতের পদধ্বনি। সন্ধ্যার পর থেকেই শীত অনুভূত হচ্ছে। রাতে ও মধ্যরাতে অনুভূত হচ্ছে আরও বেশী। জেলা শহর ও সীমান্তবর্তী উপশহরসহ গ্রামাঞ্চলে শীত পড়তে শুরু করেছে। সন্ধ্যালগ্নে

বিস্তারিত




এক নজরে

চাকরি

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সানশাইন ডেস্ক: সদ্য কার্যকর হওয়া সরকারি চাকরি আইনের সংবিধানের সঙ্গে সাংঘর্ষিক সাতটি ধারা বাতিল বা প্রত্যাহার করতে স্পিকার ও ছয় সচিবকে আইনি নোটিস পাঠানো হয়েছে। হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের (এইচআরপিবি) পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মনজিল মোরসেদ রোববার রেজিস্ট্রি ডাকযোগে নোটিসটি পাঠিয়েছেন। স্পিকার, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, রাষ্ট্রপতি সচিবালয়ের সচিব, প্রধানমন্ত্রী

বিস্তারিত