Daily Sunshine

ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ছি, বাদ যাবে না কোনো জেলা : পলক

Share

সানশাইন ডেস্ক: তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তুলছি, কোনো জেলা বাদ যাবে না। কোনো অংশে যাতে কোনো জেলা বঞ্চিত না হয় সেক্ষেত্রে নির্দেশনা রয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার।

বুধবার বিকেলে বরগুনায় শেখ কামাল আইটি সেন্টার নির্মাণের জন্য জমি দেখতে গিয়ে এসব কথা বলেন প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতিবিজড়িত জেলা বরগুনা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বরগুনা থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। তাই বরগুনার উন্নয়নের দিকে প্রধানমন্ত্রীর নজর আছে। আমরা যে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ছি তা থেকে কোনো জেলা বাদ পড়বে না।

প্রতিমন্ত্রী পলক আরও বলেন, দেশের ৬৪ জেলায় শেখ কামাল আইটি সেন্টার নির্মাণ করা হবে। যেখানে হাজার হাজার তরুণ-তরুণী প্রযুক্তিনির্ভর জ্ঞানভিত্তিক কর্মসংস্থানের সুযোগ পাবে। সবার সহযোগিতা নিয়ে বরগুনার মেধাবী ও ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং সেন্টার নির্মাণ করা হবে। জমি পাওয়ার পরই নির্মাণকাজ শুরু হবে।

শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং সেন্টার নির্মাণের জন্য বরগুনার খেজুরতলা এলাকা এবং জেলখানা এলাকায় জমি দেখেন প্রতিমন্ত্রী পলক। পাশাপাশি বরগুনার পুলিশ লাইন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব পরিদর্শন করেন তিনি। এরপর জেলা প্রশাসকের কার্যালয় প্রাঙ্গণে ‘বঙ্গবন্ধু ডিজিটাল হাব’র ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন প্রতিমন্ত্রী।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- ইনফো-সরকার প্রকল্পের তৃতীয় পর্যায় প্রকল্পের পরিচালক বিকর্ণ কুমার ঘোষ, বরগুনার জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ, বরগুনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তোফায়েল আহমেদ ও বরগুনা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জাহাঙ্গীর কবির প্রমুখ।

সানশাইন অনলাইন/এন এ

সেপ্টেম্বর ২৫
১৯:০০ ২০১৯

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

আচারেই ভরসা মর্জিনার

আচারেই ভরসা মর্জিনার

রোজিনা সুলতানা রোজি: জীবনের তাগিদেই মানুষকে বেছে নিতে হয় নানা পেশা। এটি একটি চলমান প্রকৃয়া। জীবন-যাপনের জন্য মানুষ বিভিন্ন পেশায় নিয়োজিত। জীবিকার জন্য নারীরাও করছেন নানা কাজ। পুরুষের পাশাপাশি তারাও সম্পৃক্ত হচ্ছেন বিভিন্ন ব্যবসায়। কেউ বড় পরিসরে তো কেউ ক্ষুদ্র পরিসরে নানা পন্যের পসরা সাজান। বিশেষ করে সমাজের দরিদ্র জনগোষ্ঠির

বিস্তারিত




এক নজরে

চাকরি

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সানশাইন ডেস্ক: সদ্য কার্যকর হওয়া সরকারি চাকরি আইনের সংবিধানের সঙ্গে সাংঘর্ষিক সাতটি ধারা বাতিল বা প্রত্যাহার করতে স্পিকার ও ছয় সচিবকে আইনি নোটিস পাঠানো হয়েছে। হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের (এইচআরপিবি) পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মনজিল মোরসেদ রোববার রেজিস্ট্রি ডাকযোগে নোটিসটি পাঠিয়েছেন। স্পিকার, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, রাষ্ট্রপতি সচিবালয়ের সচিব, প্রধানমন্ত্রী

বিস্তারিত