Daily Sunshine

আরও ২০ হাজার শিক্ষক নিয়োগ দেবে এনটিআরসিএ

বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শূন্যপদ পূরণে ৪০ হাজার শিক্ষক নিয়োগের প্রক্রিয়া চলছে। আগামী ফেব্রুয়ারিতে তাদের নিয়োগ দেয়া হবে। এরই মধ্যে আরও ২০ হাজার পদ শূন্য হয়েছে।

এই নতুন শূন্যপদ পূরণেরও উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। আগামী সেপ্টেম্বরের মধ্যে তাদের নিয়োগ দেয়া হবে। বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

এনটিআরসিএ চেয়ারম্যান এস এম আশফাক হুসেন জাগো নিউজকে বলেন, ‘দ্বিতীয় দফায় শিক্ষক নিয়োগের আবেদন প্রক্রিয়া শেষ হয়েছে। বর্তমানে যাচাই-বাছাই চলছে। চলতি মাসের মধ্যে যোগ্য প্রার্থীদের মেধাতালিকা প্রকাশ করা হবে। সেখানে কে কোন প্রতিষ্ঠানে যোগ্য বলে বিবেচিত হয়েছেন তা উল্লেখ করা হবে। ফেব্রুয়ারিতে যোগদান কার্যক্রম শুরু হবে। এ দফায় ৪০ হাজার শিক্ষক নিয়োগ পাবেন।’

তিনি বলেন, ইতোমধ্যে সারাদেশে আরও ২০ হাজার শিক্ষকের পদ শূন্য হয়ে গেছে। আমরা এসব প্রতিষ্ঠানের তালিকা চেয়ে জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাদের কাছে চিঠি পাঠিয়েছি। তালিকা পাওয়ার পর তা যাচাই-বাছাই করা হবে। চলতি বছরের আগস্টে নতুন নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে। প্রার্থীদের আবেদন শেষে সেপ্টেম্বরের মধ্যে যোগদানের প্রক্রিয়া শেষ করা হবে।

সূত্র জানায়, তৃতীয় দফায় ২০ হাজার শিক্ষক নিয়োগ দিতে ইতোমধ্যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের তালিকা চেয়েছে এনটিআরসিএ। জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাদের কাছে এ তথ্য চাওয়া হয়েছে। ২০১৯ সালের নভেম্বর মাস পর্যন্ত যেসব পদ শূন্য হবে তার বিষয়ভিত্তিক তালিকাও পাঠাতে বলা হয়েছে।

প্রতিষ্ঠানগুলোর শূন্যপদের তালিকার হার্ডকপি এনটিআরসিএ কার্যালয়ে পাঠাতে বলা হয়েছে। এছাড়া ই-মেইলেও শূন্যপদের তথ্য পাঠানো যাবে। তবে নতুন নীতিমালা অনুযায়ী নবসৃষ্ট যেসব পদে এখনও শিক্ষক নিয়োগের সুপারিশ হয়নি সেসব পদ শূন্য হিসেবে দেখানো যাবে না।

সানশাইন অনলাইন/এন এ

জানুয়ারী ১৮
১১:৪৩ ২০১৯

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

হেমন্তেই শীতের পদধ্বনি

ফয়সাল আলম: কুয়াশার চাদরে মুড়ে শীত আসছে। এখন যদিও হেমন্তকাল তবুও শীতের আগমনী বার্তা শুরু হয়েছে রাজশাহী অঞ্চলে। কমতে শুরু করেছে তাপমাত্রা, অনুভূত হচ্ছে শীতের পদধ্বনি। সন্ধ্যার পর থেকেই শীত অনুভূত হচ্ছে। রাতে ও মধ্যরাতে অনুভূত হচ্ছে আরও বেশী। জেলা শহর ও সীমান্তবর্তী উপশহরসহ গ্রামাঞ্চলে শীত পড়তে শুরু করেছে। সন্ধ্যালগ্নে

বিস্তারিত




এক নজরে

চাকরি

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সানশাইন ডেস্ক: সদ্য কার্যকর হওয়া সরকারি চাকরি আইনের সংবিধানের সঙ্গে সাংঘর্ষিক সাতটি ধারা বাতিল বা প্রত্যাহার করতে স্পিকার ও ছয় সচিবকে আইনি নোটিস পাঠানো হয়েছে। হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের (এইচআরপিবি) পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মনজিল মোরসেদ রোববার রেজিস্ট্রি ডাকযোগে নোটিসটি পাঠিয়েছেন। স্পিকার, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, রাষ্ট্রপতি সচিবালয়ের সচিব, প্রধানমন্ত্রী

বিস্তারিত